নূরানী ডাইংয়ের আইপিওতে ২৮ গুন আবেদন

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে আবেদন সংগ্রহ করা বস্ত্র খাতের কোম্পানি নূরানী ডাইং অ্যান্ড সোয়েটার লিমিটেডের আইপিওতে প্রায় ২৮ গুন আবেদন জমা পড়েছে। নির্ভরযোগ্য সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। তবে গনণা এখন সম্পন্ন না হওয়ায় বিস্তারিত তথ্য এখনো জানা যায়নি।

জানা যায়, আইপিও আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়া বিনিয়োগকারীদের মধ্যে শেয়ার বন্টনে আগামী ২ মে কোম্পানিটির লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে কোম্পানিটির আইপিও আবেদন শুরু হয় ২ এপ্রিল ও শেষ হয়েছে ১০ এপ্রিল (সোমবার)। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এর আগে গত ৯ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫৯৭তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও আবেদন অনুমোদন দেওয়া হয়।

জানা যায়, আইপিওতে কোম্পানিটি অভিহিত মূল্য ১০ টাকা দরে শেয়ার বিক্রি করবে। বাজারে ৪ কোটি ৩০ লাখ শেয়ার বিক্রি করে কোম্পানিটি ৪৩ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। আইপিও’র টাকা দিয়ে কোম্পানিটি ব্যবসা সম্প্রসারণের পাশাপাশি ঋণ পরিশোধ করবে।

৩০ জুন, ২০১৬ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৪.৩৭ টাকা। গত পাঁচ বছরে কোম্পানিটির গড় শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৭৯ টাকা।

কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে ইম্পেরিয়াল ক্যাপিটাল ও সিএপিএম অ্যাডভাইজরি সার্ভিসেস।

শেয়ারনিউজ/ডেস্ক/কে.আর

নুরানী ডাইংয়ের লটারির সময় নির্ধারণ

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে আবেদন সংগ্রহ করা বস্ত্র খাতের কোম্পানি নূরানী ডাইং অ্যান্ড সোয়েটার লিমিটেডের লটারির ড্র আগামী ২ মে অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে কোম্পানিটির আইপিও আবেদন শুরু হয় ২ এপ্রিল ও শেষ হয়েছে ১০ এপ্রিল (সোমবার)। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। এর আগে গত ৯ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫৯৭তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও আবেদন অনুমোদন দেওয়া হয়। জানা যায়, আইপিওতে কোম্পানিটি অভিহিত মূল্য ১০ টাকা দরে শেয়ার বিক্রি করবে। বাজারে ৪ কোটি ৩০ লাখ শেয়ার বিক্রি করে কোম্পানিটি ৪৩ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। আইপিও’র টাকা দিয়ে কোম্পানিটি ব্যবসা সম্প্রসারণের পাশাপাশি ঋণ পরিশোধ করবে। ৩০ জুন, ২০১৬ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৪.৩৭ টাকা। গত পাঁচ বছরে কোম্পানিটির গড় শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৭৯ টাকা।

কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে ইম্পেরিয়াল ক্যাপিটাল ও সিএপিএম অ্যাডভাইজরি সার্ভিসেস।

শেয়ারনিউজ/ডেস্ক/কে.আর

নূরানী ডায়িংয়ের আইপিও আবেদনের সময় নির্ধারণ

বস্ত্র খাতের নূরানী ডায়িং অ্যান্ড সোয়েটারের প্রাথমিক গণ প্রস্তাবে আবোদনের সময় নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। বৃহস্পতিবার কনসেন্ট লেটার প্রদানের মধ্যে দিয়ে কোম্পানিটির আইপিও আবেদনের তারিখ নির্ধারণ করেছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা। সূত্র জানায়, আগামী ২ এপ্রিল থেকে ১০ এপ্রিল পর্যন্ত প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে আবেদন সংগ্রহ করবে কোম্পানিটি। ওই সময় কোম্পানিটির শেয়ার ক্রয়ের জন্য আবেদন করতে পারবে বিনিয়োগকারীরা।জানা যায়, এর আগে গত ৯ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫৯৭তম কমিশন সভায় কোম্পানিটির আইপিও আবেদন অনুমোদন দেয়া হয়। আইপিওতে কোম্পানিটি অভিহিত মূল্য ১০ টাকা দরে শেয়ার বিক্রি করবে। বাজারে ৪ কোটি ৩০ লাখ শেয়ার বিক্রি করে কোম্পানিটি ৪৩ কোটি টাকা উত্তোলন করবে।

আইপিও’র টাকা দিয়ে কোম্পানিটি ব্যবসা সম্প্রসারণের পাশাপাশি ঋণ পরিশোধ করবে।

৩০ জুন, ২০১৬ সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভি) হয়েছে ১৪.৩৭ টাকা। গত পাঁচ বছরে কোম্পানিটির গড় শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১.৭৯ টাকা।

কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে ইম্পেরিয়াল ক্যাপিটাল ও সিএপিএম অ্যাডভাইজরি সার্ভিসেস।

শেয়ারনিউজ/ডেস্ক/কে.আর

শেফার্ডের আইপিও ড্র চলছে

শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) লটারির ড্র অনুষ্ঠান চলছে। আজ সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে এ ড্র অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন কোম্পানির চেয়ারম্যান চ্যাং ওয়েন কাই। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যেকোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাও ওয়েন ফু, উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল মান্নান, সিএফও মো. আতাউর রহমান। এছাড়া ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এর প্রতিনিধি রাকিবুল হাসান,চট্রগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) প্রতিনিধি আলী রাগীব, সেন্ট্রাল ডিপোজিটরী বাংলাদেশ লি: (সিডিবিএল) এর প্রতিনিধি সৈয়দ আখতার হোসেন ও ইস্যু ব্যবস্থাপক আলফা ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নূর আহমেদ উপস্থিত উপস্থিত রয়েছেন। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৫৮৯তম কমিশন সভায় সম্প্রতি এ কোম্পানিটিকে অর্থ উত্তোলনের অনুমোদন দেওয়া হয়। কোম্পানিটি অভিহিত মূল্যে শেয়ার বিক্রি করে বাজার থেকে ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। শেয়ারনিউজ/এআর